বিভাগ: কবিতা

তার কথা

অষ্ট ধাতুর তৈরি মাদুলি আমার

এই মাদুলিতে যদি কোনো কাজ নাই হয়

বিফলে ফেরত টাকা, (সম্পূর্ণ…)

শিক্ষার্থী

তেনারা গণিতের শিক্ষক- পতাকার ভাষা বোঝেন কম

বাহুবাচক প্রাঙ্গণে ঢুকে উদ্দিষ্ট ষড়ভুজে ফেলে রাখেন গভীর রেখায়ন ।

 

সরল বিদ্যাবালকেরা যায় জটিল জ্যামিতির পাঠশালায়

পরিণত কম্পাসে বেঁকে ধরানো হয় স্কুলের চতুর্ভুজ, আয়ত নিশান। (সম্পূর্ণ…)

বালিকামৌসুম

নিভৃত পদ্মপুকুর আর জলঢোঁড়া সাপের বন্ধুতা- এই ছাড়া কী থাকে সবুজ বালিকার- আমি তবু লালঠোঁট টিয়ের মতো বুকের গভীরে পুষে রাখি ভিনগ্রহপ্রেম। কেননা ঠিকানা হারিয়ে ফেলা আগুনের সরোবর খুঁজতে আসা যে যুবক বলেছিল- বেঁচে আছি এক খ- পোড়া কাঠের যন্ত্রণা নিয়ে- সে থাকে নেপচুন অথবা ইউরেনাসে- আর খসে পড়া আলোর চিঠিগুলো হাওয়ার পিয়নের কাছে পৌঁছে দেয় সিনীবালী রাতে- (সম্পূর্ণ…)

দুনিয়াদারী

জলে ভারে আকাশ তবু নুয়েই র’লো

বল্লাম ওকে, ওরে আকাশ একটু সরে দাঁড়া দেখি

চাঁদটাকে তুই রাখলি কোথায় দেখা দেখি। (সম্পূর্ণ…)

সৎকার

একদিন প্রচণ্ড অহংকারে চোখের আগুনে

পুড়িয়েছিলাম কৃষ্ণচূড়ার রং।

তর্জনী তুলে শাসন করেছিলাম নদীকে।

একদিন কেউ একজন কবিতার খাতা দিয়ে বলেছিল, (সম্পূর্ণ…)