বিভাগ: কবিতা

ঘর

যার যেখানে ঘর

তার সেখানে ওঠাবসা

এ কথা সবাই জানে! (সম্পূর্ণ…)

ম-বর্ণ-৬

মহুয়া, মল্লিকা এবং মাধবীর বন থেকে কোমল বর্ণগুলো

মার্চপাস্ট করতে করতে ছুটে যাচ্ছে

অবরুদ্ধ অক্ষরের ক্যান্টনমেন্টের দিকে।

ভাষাবাহিনীর এক মেজর জেনারেল বর্ণের ব্যাকরণ হাতে নিয়ে

রিক্রুট করে যাচ্ছে ম-বর্ণের কোনো কোনো রূপসী মেয়েকে। (সম্পূর্ণ…)

যুদ্ধের বিপক্ষে কবিতা : পাঁচ কবির পাঁচটি কবিতা

 

(জন্মলগ্ন থেকে মানুষের জীবন ও জীবিকা, ধর্ম ও রাজনীতি, ইতিহাস ও ঐতিহ্য, উত্থান ও পতন, এ রকম প্রতি অনুষঙ্গে জড়িয়ে আছে যুদ্ধ। পৃথিবীর উল্লেখযোগ্য সাহিত্যকর্মের বড়ো একটা অংশ এই যুদ্ধেরই বিভীষিকা ও ইতিহাস। বিভিন্ন ধর্মগ্রন্থও মূলত যুদ্ধ-বিগ্রহের বর্ণনা ও বিস্তার। অনাদিকাল থেকে মানুষের এক নির্মম ও প্রিয় খেলা এই যুদ্ধ। বিপরীতক্রমে, মুষ্টিমেয় কিছু মানুষ সব সময়ই যুদ্ধের বিপক্ষে সোচ্চার হয়েছেন। এঁদের মধ্যে সমাজের অগ্রসর অংশ, কবি ও সাহিত্যিক, শিল্পী ও বিজ্ঞানীরা প্রধান ভূমিকা রেখেছেন। প্রাগৈতিহাসিক কাল থেকে এই কবি-সাহিত্যিকেরা বিরামহীনভাবে যুদ্ধের বিরুদ্ধে কলম ধরেছেন। বিশ্ব সাহিত্যের প্রথম দিকে যুদ্ধ-বিরোধী কবিতা লেখেন হোমার। তারপর পৃথিবীর প্রায় সব বিখ্যাত কবিই যুদ্ধ-বিরোধী কবিতা লিখেছেন। এখনো লেখা হচ্ছে অসংখ্য। এরকম হাজার হাজার কবিতা থেকে কয়েকটা কবিতা বেছে নেয়া দুঃসাধ্য। অনেকটা দৈবচয়ন করে গত শতাব্দীর পাঁচজন কবির পাঁচটি কবিতা অনুবাদ করা হলো।) (সম্পূর্ণ…)

রৌদ্রযাত্রা

আমরা কক্ষটির নাম রেখেছি- ‘১৩০৭’

 

কক্ষ থেকে দেখা যায় না সিঁড়ি কিম্বা ছাদ

দেখা যায় না কুয়াশামাখা শূন্য-দুপুর, না (সম্পূর্ণ…)

সন্তনির্জন

নিঃশব্দতায় কান পেতে শুনি, যার ভাষ্য কেবলি র্নিজন,

কোনো পত্রবিনিময়ে কখনও ক্ষীণভাবে ধরা পড়ে না তার বুকের ঘ্রাণ

 

আয়ু ক্ষয় হয়, ক্ষণে ক্ষণে চমকাই তাকে খুঁজে, মশলার বন, (সম্পূর্ণ…)