হারানো লাটিমের কাহিনি

Facebook Twitter Email

কাল রাতে ইঁদুরের মতো আমি স্বপ্নে আদিবাসী মানুষের গুহার ভেতরে ঢুকে

পড়ি। সেখানে দেখি, ঘুমন্ত পৃথিবীর দরোজায় সেঁটে দেওয়া আছে  হাওয়া

বিবির রাশিচক্রের বই। এক মহিলা তার জীবনের খাতা এমনভাবে উল্টিয়ে

যাচ্ছেন যেন তিনি জুয়াপ্রেমিকের পাতা থেকে গ্রন্থ পাঠ করছেন। আর

আমকাঁঠালের ভুতুড়ে স্কুলে পাঠ দেওয়া হচ্ছে হাবিল-কাবিলের হারিকিরি।

আদি যুগের মানুষগুলি পাখির পালকের মতো, মধ্যাকর্ষণের শূন্য স্টেশনে

ভরহীন অবস্থায় উড়ে চলে। সেখানে ভাষার পশম খুঁটে দেখলাম, গুহার

ভেতরে ক্রিয়াপদগুলি পরাবাস্তব। ইতিহাস যদি স্তব্ধতার পিয়ানো বাজায়

আর আমরা যদি আবার আদি পৃথিবীর গানে মুহূর্তে মানব অন্তর দর্শন

করে আসতে পারি ক্ষতি কি? সেই ভাবনা থেকে পতঙ্গবিশারদ সাজি,

খুঁজি অলৌকিকভাবে হারিয়ে যাওয়া, হারানো লাটিমের কাহিনি।

 

 

 

Facebook Twitter Email