রূপসনাতন

Facebook Twitter Email

কে যায় ওপথ দিয়ে কে যে হেঁটে যায়?

নিশিরাত বাঁকা চাঁদ আজ ভুল সুরে গান গায়।

জোছনার বালুচরে লাল ময়ূরের খেলা

মনে পড়ে হাস্নাহেনা বকুলপুরের মেলা।

কে দেখবি আয় তোরা আয় আয়-

কে যায় ওপথ দিয়ে কে যে যায়?

 

বাঁশবনে জোনাকিরা জ্বালে প্রাণের প্রদীপ

লাল পরী নীল পরী কপালে আলোর টিপ।

হু হু করে বহুদূরে ভাটিয়ালী বাঁশি;

কে যে রাখাল বন্ধুর তরে আজো গান গায়-

কে যায় ওপথ দিয়ে কে যে যায়?

 

রাত কাঁদে আর কাঁদে দূর আকাশের তারা

জমিনের চোখে জল বিরহের ধারা।

নাও নিয়ে এই রাতে কে যে একা ভাসে ?

কালীগাঙ সাক্ষী থাকে কুষ্টিয়ার পাশে।

ইতিহাস একা হাঁটে একা হেঁটে যায়

কে যায় ওপথ দিয়ে কে যে হেঁটে যায়।

 

হারিয়ে যাবো বিলীন হবো এইতো ভবে নিত্যখেলা

এসেছিলাম ভবের হাটে কেনাবেচার আজব লীলা।

জগতের কী রূপ দেখেছি ফুল তুলেছি সকালবেলা

সাঁঝের বেলা সমন এলো ভাঙলো হায় মিলনমেলা।

দুনিয়া তবু দু হাত দিয়ে হাজার বার আমায় ডাকে-

দুনিয়াদারি কঠিন মায়া কালীগাঙের অরুপ বাঁকে।

 

হারিয়ে যাবো বিলীন হবো এইতো ভবে নিত্য খেলা

কতো রঙের পাখি ওড়ে আকাশ জুড়ে

পথের দিশা পাবে কে যে অনেক ঘুরে ?

জনম গেল ভুলের মাঝে সারাবেলা-

এসেছিলাম ভবের হাটে কেনাবেচার আজব লীলা।

 

টাকাপয়সা যাবে না কিছুই আমার সাথে

কতো মানুষ রাখলো হাত আমার হাতে।

দিনের শেষে হিসাব দেখি সবই ভুল

মনের বনে পাবো কোথায় জাদুর ফুল!

 

এসেছিলাম ভবের হাটে কেনাবেচার আজব লীলা

হারিয়ে যাবো বিলীন হবো এইতো ভবে নিত্য খেলা।

 

 

 

 

Facebook Twitter Email